- বাংলাদেশ, সচেতনতা

Generation Gap

ডা : সাবরিনা আরিফ চৌধুরী :: আমার আম্মার কোমরের কাছটায় মাঝে মাঝে প্রচন্ড ব্যাথা হতো … সন্ধ্যের দিকে ! ডাক্তারের কাছে গেলে কি না কি অসুখের কথা বলে এই ভয়েই হোক অথবা আটোসাটো সাংসারিক খরচ থেকে পরীক্ষা নিরীক্ষা আর ঔষধ বাবদ অনেকগুলি টাকা চলে যাবে এই ভয়েই হোক -তিনি ডাক্তার দেখাতে যেতেন না ! কে না জানে বাংগালি মধ্যবিত্ত পরিবারে অসুস্থতা বাবদ কোন বাড়তি বাজেট থাকেনা !এই সময় আম্মা ঘর অন্ধকার করে শুয়ে থাকতেন ! আমার homework এর পাট চুকলে আমাকে ডাকতেন কোমর টিপে দেবার জন্য ! আমি প্রানপনে আম্মাকে আরাম দেবার চেষ্টা করতাম! ব্যথায় ছটফট করতে করতে আম্মা একসময় ঘুমিয়ে পরতেন ! অন্ধকার ঘরে আমার গা ছমছম করতো -আমার মা যদি মরে যায় ! এক নানী ছাড়া আর তো কেউ নাই ! বাবার সাথে যোজন যোজন দূরত্ব ! এখনও যেমন বন্ধু দু’একজন -তখনও তাই ছিলো!খুব পড়ুয়া type ভালো ছাত্রীদের কোন বন্ধু হয়না ! অতিরিক্ত রোগা(তখন তাই ছিলাম), অতিরিক্ত ফরসা(কেবলই অতীত), মাথায় ছেলেদের মতো ছাঁটা চুল, খেলাধূলায় অনাগ্রহী, খানিকটা তোতলা মেয়েটি আসলে মা ছাড়া একেবারেই একা !আমার মা যদি মরে যায় , আমার বাবা যদি গল্পের বইএর মতো সৎমা নিয়ে আসে যে বাইরে মানুষ অথচ আসলে পেত্নী তবে আমার কি হবে এই ভয়ে আম্মা ঘুমিয়ে গেলেও আমি কোমরে হাল্কা চাপ দিতেই থাকতাম, একটু ক্ষনের জন্যও থামতাম না ! কোন কোনদিন ভোর হয়ে যেত !ফজরের আযান শুনতাম !!!

আজকালকার কন্যারা আধুনিক ! অহনাকে যদি বলি , এখানে ব্যথা -ম্যাসেজ কর দেখি ! সে বলে , মা,it’s not a solution! তুমি তো doctor, find out করো কেন pain হচ্ছে ! Take medicine! তবে একটা ব্যপারে তাকে কোন ছাড় দেইনা! যখন তখন ছবি তুলে দিতে বলি ! সে mobile screen এর games থেকে প্রচন্ড অনিচ্ছায় চোখ সরিয়ে বলে , কালকেই না তুলে দিলাম !তুমি upload করলা, আজ আবার ?! আমি ওর আপত্তি পাত্তা দেইনা !তুলতে বলছি তোল! মুখ ব্যাজার করে তোলে ! আমি দেখে বলি -এইটা কি তুললি? কেমন মোটা লাগছে ! মা, তুমি কিছু বোঝনা… এটাই perfect!
আর কিছু বলি না ! ডিজিটাল পোলাপাইন!

রোজা ও কষ্টের দিন গুলি

বিয়ের আগে মেয়েদের বুক ধড়ফড়

 

TG Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *