- বাংলাদেশ

অমানবিক : ভালুকায় বই না থাকায় ক্লাশ থেকে বের করে দেয়ায় কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

বইয়ের জন্য ক্লাশের বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখায় ও বই কেনার টাকা না পেয়ে ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলায় এক কলেজছাত্রী আত্মহত্যা করেছে।বৃহস্পতিবার সকালে পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সূত্র জানায়, পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের মজনু মিয়ার মেয়ে ত্রিশাল-ভালুকা মৈত্রী কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দীপা আক্তার বন্যা (১৬) তার মা মনোয়ারার কাছে বই কেনার জন্য টাকা চায়। হতদরিদ্র মা টাকা দিতে পারেনি। বুধবার শিক্ষক তাকে বইয়ের জন্য ক্লাশের বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখে। সেই লজ্জা ও ক্ষোভে বৃহস্পতিবার সকালে নিজ ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে।

এলাকাবাসী জানান, দীপা আক্তার বন্যা সাত মাসের গর্ভে রেখে তার বাবা নিরুদ্দেশ হয়ে চলে যায়। তার মা মানুষের বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করে তাকে লেখাপড়া করায়। বন্যার মা মনোয়ারা বর্তমানে উপজেলার ভরাডোবা ইউনিয়নের পেট্রিয়ট স্পিনিং মিলে চাকরি করেন। লাশ দাফনের জন্য নিজেদের কোনো গোরস্থান না থাকায় পৌরসভার গোরস্থানে বন্যার লাশ দাফন করা হয়েছে।

বন্যার প্রতিবেশি বান্ধবী রোজী জানান, বন্যা বই ছাড়া ক্লাশে গেলে কলেজের ক্লাশ শিক্ষক তাকে রুমের বাইরে দাঁড় কারিয়ে লজ্জা দেয়ায় সে আত্মহত্যা করেছে।

বন্যার মা মনোয়ারা জানায়, আমার চাকরির বেতন না পাওয়ায় সকালবেলা আমার ভাইয়ের কাছে বই কেনার টাকার জন্য যাই। সেখান থেকে বাড়িতে এসে আমার মেয়ের ঝুলন্ত লাশ দেখতে পাই।

ত্রিশাল-ভালুকা মৈত্রী কলেজের অধ্যক্ষ খাইরুল বাশারের মোবাইল ০১৭১২৩৪২৮৮৬ নম্বরে বারবার ফোন দেয়ার পরও তিনি রিসিভ না করায় তার বক্তব্য দেয়া সম্ভব হয়নি।

ভালুকা মডেল থানার ওসি ফিরোজ তালুকদার বলেন, বই কিনতে না পেরে মেয়ের আত্মহত্যার ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক। আমার কাছে যদি মেয়ের পরিবার টাকার জন্য আসত আমি বই কিনে দিতাম।

এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিনা ময়নাতদন্তে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

TG Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *