- Awareness

সাধারণ জীবন অসাধারণ স্বপ্ন

জেসমিন চৌধুরী :: ফেসবুকের আদার বক্স থেকে খুঁড়ে বের করা একটা মেসেজে একটা মেয়ে লিখেছে- ‘আপু, আজ দুপুর পর্যন্ত মনে হচ্ছিল মরে যাব, কিন্তু আপনার অনেকগুলো পোস্ট পড়ার পর কেন যেন মনে কিছুটা শান্তি পাচ্ছি। মনে হত আমি আঁধারে ডুবে যাচ্ছি, তা থেকে আর বের হতে পারব না কখনো, সারাক্ষণ মরে যাওয়ার কথা ভাবতাম। আপনার পোস্টগুলো পড়ার পর মনে হচ্ছে মরে যাওয়ার কথা না ভেবে ভালো থাকার কথাও তো ভাবতে পারি। এখন প্রতিদিন অপেক্ষা করি- কখন আপনি কিছু পোস্ট করবেন আর আমি তা পড়ব। আপু, আপনি আমার মেডিসিন’।

সেদিন আমার চুমু বিষয়ক পোস্টে একজন মন্তব্য করেছিলেন, ‘ছোটবেলা আমাদেরকে বলা হত মনীষীদের জীবনী পড়তে। এখন আপনার জীবনী পড়তে পড়তে জাতির জীবন শেষ।’

আমি আসলেই এমন কেউ নই যার জীবনী পড়া প্রয়োজন। আমি একজন সাধারণ মানুষ যার একটা জীবন আছে, যে অনেক প্রতিকূলতা সত্ত্বেও জীবন বাঁচতে ভালোবাসে। মনীষীদের জীবন পড়ে অনেকেই অনুপ্রেরণা পান, জ্ঞান অর্জন করেন, দিক নির্দেশনা পান। আমার জীবনের এতো এতো গল্প পড়ে কি কারো কোনো লাভ হয়? প্রশ্ন উঠতেই পারে।

কারো লাভের কথা ভেবে আমি লিখতে শুরু করিনি। আমার জীবনের প্রথম গল্পটি লিখেছিলাম সাত বছর বয়সে। দুষ্টুমির শাস্তি হিসবে বাবা নজরবন্দী করে রেখেছিলেন, সেই বন্দীত্বের কষ্টের কথা লিখেছিলাম। সেই থেকে সবসময় নিজের জীবনের কথা, চারপাশে দেখা জীবনের কথা লিখি। লিখতে ভালো লাগে বলেই লিখি। সেই লেখাগুলোও যে কখনো কারো কাজে লেগে যাবে বা যেতে পারে তা কখনোই ভাবিনি।

সাধারণত আদার বক্সে আসে চাপাতিওয়ালাদের হুমকি, গালিগালাজ এবং পর্নোগ্রাফি। তারই ফাঁকে ফাঁকে আবার এমন কিছু মেসেজও থাকে যা পড়ে মনে হয় চাপাতিওয়ালারা কোপালে কোপাক, তবু লিখে যাব।

আজ এরকম তিনটা মেসেজ পেয়েছি যেগুলো পড়ে শুধু আমার আজকের দিনটি নয়, এই বছরটি নয়, আমার জীবনটাই সার্থক হয়ে গেছে। যদি জীবনে আগে অথবা পরে একটাও ভালো কাজ না করে থাকি, যদি শুধু এই মেয়েটাকে বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখানোই হয় আমার জীবনের একমাত্র উল্লেখযোগ্য কাজ, আমার জীবন সার্থক হয়ে গেছে।

আপনারা শুনছেন? আমি খুব সাধারণ একজন মানুষ বলেই সাধারণ মানুষকে স্বপ্ন দেখাতে পারি, যে স্বপ্ন আসলেই সত্যি হতে পারে, যে স্বপ্ন মনীষীরা দেখাতে পারে না। অতএব আমার জীবনী লিখন চলছে, চলবে। জেসমিন চৌধুরী এভাবেই জীবনের কথা বলবে।

জেসমিন চৌধুরী’র অন্য লেখা পড়তে ক্লিক করুন—-

১. একটি উজ্জ্বল সাফল্য

২. উড়ে যায় কালো ক্যাপ

TG Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *