- Awareness

স্যানিটারি প্যাডের বিনিময়ে যৌন সম্পর্ক

ডেস্ক নিউজ :: স্যানিটারি পণ্যের বিনিময়ে কেনিয়ার বালিকা-যুবতীদের যৌন সম্পর্ক স্থাপনে বাধ্য করা হচ্ছে। এসব পণ্যের সংকট থাকায় কিছু অসাধু লোক নারীদের ফাঁদে ফেলে যৌন সম্পর্কে বাধ্য করে। ইউনিসেফের এক নতুন গবেষণায় দুর্ভিক্ষ ও দারিদ্র্যপীড়িত দেশটির নারীদের ভয়াবহ জীবনচিত্র ফুটে উঠেছে।

গবেষণায় দেখা গেছে, কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবির পাশে কিবেরা বস্তি। এটি আফ্রিকার মধ্যে সবচেয়ে বড় বস্তি। সেখানকার ৬৫ ভাগ নারী স্যানিটারি প্যাডের বিনিময়ে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করে।

রোববার ব্রিটিশ দৈনিক দ্য ইন্ডিপেনডেন্টের খবরে বলা হয়, পশ্চিম কেনিয়াতে বয়ঃসন্ধিক্ষণে পৌঁছা কিশোরীদের শতকরা ১০ ভাগই শুধু স্যানিটারি প্যাডের বিনিময়ে যৌন সম্পর্কে জড়ায়। কেনিয়ার ৫৪ ভাগ মেয়ে বলেছে, তারা ঋতুস্রাবের সময় প্রয়োজনীয় স্যানিটারি পায় না। এটি পাওয়া এক চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায় তাদের কাছে। স্কুলগামী বালিকাদের মধ্যে শতকরা মাত্র ২২ ভাগ স্যানিটারি পণ্য নিজেরা কিনে নিতে পারে।

ওয়াটার, স্যানিটেশন অ্যান্ড হাইজিনবিষয়ক ইউনিসেফের কেনিয়া প্রধান অ্যানড্রু ট্রেভেট বলেন, স্যানিটারি পণ্যের বিনিময়ে কেনিয়ায় বালিকাদের যৌন সম্পর্ক গড়ার ঘটনা অতি সাধারণ একটি বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। এর জন্য দুটি কারণ আছে। তা হল- দারিদ্র্য ও স্যানিটারি পণ্যের সরবরাহের বিষয়। কেনিয়ার তরুণী-যুবতীদের এসব পণ্য কেনার মতো আর্থিক সামর্থ্য নেই।

TG Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *